,

জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘ইচ্ছে নদী’র ‘মেঘলা’ বিয়ে

মিডিয়ামেইল : ভারতের স্টার জলসার জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘ইচ্ছে নদী’র ‘মেঘলা’ বিয়ে করেছেন। পর্দায় নয়, বাস্তবেই বিয়ে করেছেন তিনি। গত রোববার অনেকটা চুপিসারে কলকাতায় বিয়ের সব আনুষ্ঠানিকতা সেরেছেন ‘মেঘলা’ সোলাঙ্কি রায়। বর গোগোল বসু কলকাতার ছেলে। তিনি রুপালি জগতের কেউ নন। কর্মসূত্রে আছেন নিউজিল্যান্ডে। সেখানে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন। সোলাঙ্কি আর গোগোলের বিয়েতে এসেছিলেন ‘ইচ্ছে নদী’ সিরিয়ালের বিক্রম চট্টোপাধ্যায়, সুদীপ্তা বন্দ্যোপাধ্যায়, পলাশ অধিকারী, প্রিয়াঙ্কা রতি পালসহ টেলিপাড়ার একঝাঁক তারকা৷

সোলাঙ্কি আর গোগোলের সম্পর্ক অনেক দিনের৷ এবার সেই সম্পর্ক পরিণয়ে রূপ নিয়েছে। স্টার জলসায় ‘ইচ্ছে নদী’ সিরিয়াল শেষ হওয়ার পর গত বছর জুলাই মাসে সংবাদমাধ্যমকে সোলাঙ্কি জানান, তাঁর হাতে নতুন কোনো কাজ নেই। সাড়ে তিন বছর টানা ‘ইচ্ছে নদী’র কাজ করেছেন। এবার লম্বা ছুটি নিয়েছেন। যাচ্ছেন নিউজিল্যান্ড। ওখানে বন্ধু আছে। তাঁর সঙ্গে কিছুদিন বেড়ানোর পরিকল্পনা করেছেন। সেই বন্ধুটি যে গোগোল, এখন সবাই তা বেশ বুঝতে পারছেন।

‘ইচ্ছে নদী’ সিরিয়ালের অনুরাগ-মেঘলা জুটিকে মনে রেখেছেন দর্শক। সিরিয়ালটি শেষ হয়েছে নয় মাস আগে, কিন্তু বিক্রম-সোলাঙ্কি এখনো সমান জনপ্রিয়। সোলাঙ্কির বিয়েতে হাজির হয়ে তাঁকে শুভেচ্ছা জানান বিক্রম চট্টোপাধ্যায় (‘ইচ্ছে নদী’র অনুরাগ)। শুধু তা-ই নয়, ফেসবুকে তিনি সেই ছবি শেয়ার করেছেন।

এদিকে ‘ইচ্ছে নদী’র পর সোলাঙ্কি এখন অভিনয় করছেন জি বাংলার সিরিয়াল ‘সাত ভাই চম্পা’য়। এখানে তিনি অভিনয় করছেন ‘ছোট রানি পদ্মাবতী’র চরিত্রে। গত বছর ২৯ এপ্রিল বিক্রম চট্টোপাধ্যায় কলকাতায় এক গাড়ি দুর্ঘটনায় মারাত্মক আহত হন। গাড়িতে তাঁর সঙ্গে ছিলেন বন্ধু জনপ্রিয় মডেল সোনিকা সিংহ চৌহান। ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। বিক্রমের বিরুদ্ধে অনিচ্ছাকৃতভাবে মৃত্যু ঘটানোর অভিযোগ আনে কলকাতা পুলিশ। এরপর ভারতের বাংলা সিরিয়াল ও চলচ্চিত্রের অন্যতম জনপ্রিয় তারকা বিক্রম চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এই ঘটনার পর হঠাৎ করেই ‘ইচ্ছে নদী’র কাহিনি শেষ করে দেয় স্টার জলসা কর্তৃপক্ষ।

Palash3700

     এই বিভাগের আরও সংবাদ